ভুলি কেমন করে

 ভুলি কেমন করে


ড. আবদুল মান্নান মিয়া

সূফী সম্রাটের ওফাত হলো
শোকের ছায়া নেমে এলো
সারা ভুবনে,
অলীদের বাদশাহ হলেন
জগত ছেড়ে চলে গেলেন
স্রষ্টার পানে।


মোর্শেদ হলেন আত্মার পিতা
পাপীতাপীর মুক্তিদাতা
মানুষের তরে,
বাবা ছিলেন মহাজ্ঞানী
আশেকের নয়ন মণি
জগত মাঝারে।


পেয়েছিলাম বাবার কদম
আমরা যারা মূর্খ অধম
পরম ভাগ্য গুণে,
আল্লাহ্ রাসুলের কথা বলা
সঠিক পথে যায় না চলা
মোর্শেদ বিহনে।


বাবা ছিলেন সংস্কারক
আল্লাহর নুরের ধারক বাহক
ভুলি কেমন করে?
বাবা অতি দয়ালু ছিলেন
দয়ার হাত বাড়িয়ে দিলেন
আমাদের তরে।
মোর্শেদ যার থাকে ভবে
নাহি তার দুঃখ রবে
দুনিয়ার বুকে,
দয়াল বাবার দয়া পেলে
দুঃখ কষ্ট যাবে চলে
থাকবে সদা সুখে।

সঠিক পথে চলতে হলে
মোর্শেদ লাগে কুরআন বলে
একাকী কভু হয় না,
আল্লাহর দয়া নাহি হলে
খাঁটি মোর্শেদ কোনো কালে
খুঁজে পাওয়া যায় না।
বাবা ছিলেন আপনজন
মুরিদের হৃদয়ের ধন
একথা চির সত্য,
সূফী সম্রাটের শিক্ষা নিলে
আল্লাহ্ রাসুলের দিদার মিলে
এটাই সঠিক তথ্য।


স্মরণ করলে বাবার বাণী
দুই চোখে আসে পানি
চেপে রাখা যায় না,
সারা জীবন খুঁজলে ভবে
এমন মোর্শেদ আর কি পাবে
তাঁহার সমান হয় না।
দয়াল বাবা বিদায় নিলেন
দারুল বাকায় চলে গেলেন
মোদের এতিম করে,
স্রষ্টার কাছে প্রার্থনা জানাই
চিরটা জীবন থাকতে চাই
বাবার কদম ধরে।


মোর্শেদের কথা থাকলে স্মরণ
ইমানের সাথে হবে মরণ
এটাই খোদার লীলা,
দয়াল বাবার যদি দয়া হয়
আশেকে রাসুলদের নাই ভয়
শেষ বিদায়ের বেলা।